রায়পুরে ইউপি চেয়ারম্যানকে মারধর করেছে মেম্বার আহত ০৩

0
14

জমিন প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর উপজেলার এক ইউপি চেয়ারম্যান কে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে । ঘঠনাটি ঘটেছে সোমাবার বিকেল সাড়ে ৬টা দিকে আখন বাজারস্থ মিন্টু ফরাজীর ইউপি পরিষদে একটি সাল্লিস বৈঠকে। অভিযুক্ত মেম্বারের নাম ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোহাম্মদ আলমগীর ওরফে মোহাম্মদ আলী, তার ভাই লিটন ও তার সন্ত্রাসী বাহিনী। বিষয়টি নিয়ে এলাকা জনমনে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানাযায়, সৌদিতে স্থানীয় আখন বাড়ীর দুই প্রবাসীর ৬ হাজার রিয়্যাল অর্থের লেনদেনের বিষয়ে বিরোধ দেখা দিলে রবিবার বিকেলে চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত কার্যলয়ে এক শালিসি বৈঠকের আয়োজন করেন চেয়ারম্যান স্বয়ং। ওই শালিসে চেয়ারম্যান মিন্টু ফরাজী, ৩নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোহাম্মদ আলী, ৪নং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেম্বার আব্বাস উদ্দিন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান আওয়ামীলীগ নেতা তারেক আজিজ জনি সহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এসময় প্রায় ৭০/৮০ জন মানুষের উপস্থিতি ছিল ওই শালিসি বৈঠকে।

বৈঠকে মেম্বার মোহাম্মদ আলী ও তার ভাই লিটন একটি পক্ষ এবং তাদেরই বাড়ির (আখন বাড়ি) জনৈক প্রবাসী ডালিম গং অন্য পক্ষের। শালিসদারগণ বাদী-বিবাদী উভয় পক্ষের বক্তব্য শোনার পর এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় শুরু হলে মেম্বারের সন্ত্রাসী ভাই লিটন প্রবাসী ডালিমকে অতর্কিতে কিল-ঘুষি মারা শুরু করলে তার সাথে থাকা ১৪/১৫ জন সন্ত্রাসীও একত্রিত হয়ে ডালিম ও তার দুই ভাইকে এলোপাতাড়িভাবে কিল-ঘুষি মারা শুরু করে।
এসময় চেয়ারম্যান মিন্টু ফরাজী ও তারেক আজিজ জনি হামলাকারীদের নিভৃত করতে গেলে তাদেরকেও কিল-ঘুষি মেরে আহত করে হামলাকারীরা। এসময় চেয়ারম্যান তার ডান হাতে মারাত্মক আঘাতপ্রাপ্ত হোন।

 

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা তারেক আজিজ জনি বলেন, শালিসে পরাজিত হবার আশঙ্কায় মেম্বার, তার ভাই ও তাদের সাথের লোকজন এই বর্বরোচিত হামলার ঘটনাটি ঘটিয়েছে। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, আমি ঘটনাটি রায়পুর থানার ওসি সাহেবকে জানিয়েছি।

চেয়ারম্যান মিন্টু ফরাজী বলেন, এটা একটা দুঃখজনক ঘটনা। হামলাকারীরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল নন। এটা একটা সন্ত্রাসী হামলা। আমি এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি
রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার সিপুন বড়ুয়া ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here