লক্ষ্মীপুরে নৌকার জয়জয়কার

 

সবুজ জমিন: লক্ষ্মীপুর জেলা  জুড়ে নৌকার জয়জয়কার অবস্থা বিরাজ করছে। লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদর আংশিক) উপনির্বাচনে এমপি এবং জেলার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে ৬টিতেই আওয়ামী লীগ–মনোনীত (নৌকাপ্রতীকের) প্রার্থীরা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

সোমবার (২১ জুন) সকাল ৮টা থেকে লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদর আংশিক) আসনের উপ-নির্বাচনে ১৩৬ কেন্দ্রে ইলেক্ট্রিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণ হয়। এতে এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন ১ লাখ ২২ হাজার ৫শ’ ৪৭ ভোট পেয়ে নিরবে জয় লাভ করেছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী শেখ মোহাম্মদ ফায়েজ উল্যা শিপন লাঙ্গল পেয়েছেন ১৮শ’ ৮৬ ভোট।

একইদিন লক্ষ্মীপুরের কমলনগর ও রামগতির ৬টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সব কয়টিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থীরা বিপুল ভোটে জয় পেয়েছে। ব্যালটের মাধ্যমে এ ভোট হয়।

রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা স্বপন কুমার ভৌমিক জানান, চরফলকন ইউপিতে চেয়ারম্যান প্রার্থী মোশারেফ হোসেন বাঘা (নৌকা) প্রতীকে ৭ হাজার ২৯১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (ঘোড়া) প্রতীকের প্রার্থী সাজ্জাদুর রহমান ১ হাজার ১৫৩ ভোট পেয়েছেন। তোরাবগঞ্জ ইউপিতে (নৌকা) প্রতীকের মীর্জা আশ্রাফুল জামান রাসেল ৮ হাজার ১১৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (ঘোড়া) প্রতীকের প্রার্থী ফয়সল আহমেদ রতন পেয়েছেন ৩ হাজার ২৭১ ভোট। হাজীরহাট ইউপিতে নিজাম উদ্দিন (নৌকা) প্রতীকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৮শ ১৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আক্তার হোসেন মিলন (চশমা) প্রতীকে পেয়েছে ৩ হাজার ৭৫ ভোট।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, রামগতির চরবাদাম ইউপিতে (নৌকা) প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী শাওখায়াত হোসেন জসিম পেয়েছেন ৭ হাজার ৭শ ৯০ ভোট তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (হাতপাখা) প্রতীকে ইয়াকুব শরিফ পেয়েছে ১ হাজার ২শ ১৫ ভোট। চর পোড়াগাছা ইউপিতে (নৌকা) প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আমিন ৮ হাজার ১৮ ভোট তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (চশমা) প্রতীকে রাহেত বিপ্লব পেয়েছে ৪ হাজার ১শ ২৫ ভোট। চররমিজ ইউপিতে (নৌকা) প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মুজাহিদুল ইসলাম পেয়েছে ১৩ হাজার ৮শ ৪৪ তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী (আনারস) প্রতীকে পেয়েছে ১ হাজার ৬শ ৬১ ভোট।