লক্ষ্মীপুরে বিদেশগামী কর্মীদের ফিংগার প্রিণ্ট কার্যক্রম শুরু

 

সবুজ জমিন প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে বিদেশগামী কর্মীদের ফিংগার প্রিণ্ট কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। (আজ) রবিবার দুপুরে লক্ষ্মীপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ফিংগার প্রিণ্ট কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ।

কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যক্ষ প্রকৌশলী গিয়াস উদ্দীন আহাম্মদের সভাপতিত্বে এ সময় উপস্থিত ছিলেন কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উপাধ্যক্ষ মির্জা ফিরোজ হাসান, অভিবাসী তথ্য কেন্দ্রের কাউন্সিলর মো.ইকবাল হোসেন ও মো. ফাহিম ফেরদৌস, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের চীফ ইন্সট্রাক্টর আরিফুর রহমান সোহেলসহ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের শিক্ষক-কর্মচারী, প্রশিক্ষণার্থী, বিদেশগামীরা।

 

কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উপাধ্যক্ষ মির্জা ফিরোজ হাসান জানান, লক্ষ্মীপুর জেলার বিদেশগামীদের পাশ্ববর্তী জেলা নোয়াখালী অথবা ঢাকায় গিয়ে ফিংগার প্রিণ্ট দিতে হতো। এতে ভোগান্তির মধ্যে পড়তো হতো তাদের। কিন্তু ইন্টার ন্যাশনাল সেন্টার ফর মাইগ্রেশন পলিসি ডেভেলপমেন্ট (আইসিএমপিডি) এর উদ্যোগে লক্ষ্মীপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ফিংগার প্রিণ্ট মেশিন স্থাপন করা হয়। এখন থেকে ২০০ টাকা ব্যাংক ড্রাফট এর মাধ্যমে এ জেলার বিদেশগামীরা ফিংগার প্রিণ্ট এর কার্যক্রম এখানে সম্পন্ন করতে পারবেন। এ কেন্দ্রে বিদেশগামীদের তিন দিনের পাক বহিঃগমন, প্রশিক্ষণ কোর্স শেষে তাদের ফিংগার নেওয়া হবে। প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত প্রায় শতাধিক বিদেশগামীদের ফিংগার প্রিণ্ট নেওয়া হবে।

 

এ সময় বিদেশগামীদের উদ্দেশ্য প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, রেমিট্যান্স যোদ্ধারা অর্থনীতির চালিকা শক্তি। বিপুল সংখ্যক লোক যখন বিদেশে যায়, তখন দেশে বিপুল পরিমাণ রেমিট্যান্স আসে। তাই বিদেশগামীরা যাতে নিরাপদে বিদেশ যেতে পারে এবং বিনা ঝুঁকিতে কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিলে দেশের অর্থনীতি আরও তরান্বিত হবে।

তিনি আরও বলেন, লক্ষ্মীপুরে ২০০৯ সাল থেকে এ যাবৎ পর্যন্ত প্রায় ৯ লাখ লোক বিদেশে গেছেন। প্রবাসীদের সেবা দেওয়ার জন্য প্রশাসন সর্বাত্মক প্রস্তুত। যে কোন সমস্যায় প্রবাসীরা যেন প্রশাসনের সাথে যোগাযোগ করে সে আহ্বান জানান তিনি