লক্ষ্মীপুরে বিয়ে বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনাকে নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

 

সবুজ জমিন: লক্ষ্মীপুরে বিয়ে বাড়িতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটেছে এতে নতুন বরসহ কমপক্ষে ১০জন নারী-পুরুষ আহত হয়েছে। আহত সবাই জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শুক্রবার (০৪জুন) বিকেলে সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরভূতা গ্রামে কনের বাড়িতে এ রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, পশ্চিম চরমনসা গ্রামের সুলতান আহমদের ছেলে রুবেল হোসেন তার পাশবর্তী চরভূতা গ্রামের ইব্রাহিমের মেয়ে লাজুকে পারিবারিক ভাবে বিবাহ করে। শুক্রবার দুপুরে কনের বাড়িতে বিয়ের অনুষ্ঠান হয়েছে। অনুষ্ঠান চলাকালীন ছেলের বাবা, কনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত এক বোতল পানি চেয়েছেন। এ পানিকে কেন্দ্র করে বর-পক্ষ ও কনে-পক্ষ মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে মারামারির রূপ নেয় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে।

এতে আহত হন, বর রুবেল, তার বাবা সুলতান আহমদ, ভাই মোরশেদ, ইউসুফ, হুমায়ুন, ছোট বোন রৌশন ও বোনের জামাই মোরশেদ।

রাত ৯ টার দিকে আহতদের হাসপাতালে দেখতে গিয়ে দুঃখপ্রকাশ করে ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল হাসান রনি বলেন, নতুন আত্মীয়ের সাথে এমন অমানবিক আচারণ ঠিক হয়নি। ইচ্ছে করলে ক্ষতিগ্রস্থ বর-পক্ষ আইনগত সহায়তা নিতে পারে।

লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ জসিম উদ্দিন বলেন, এবিষয়ে লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।