লক্ষ্মীপুরে ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা। নিন্দা ও প্রতিবাদ

লক্ষ্মীপুরে ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা। নিন্দা ও প্রতিবাদ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
সংবাদ প্রকাশ ও স্যোসাল মিডিয়ায় শেয়ার করায় লক্ষ্মীপুরের ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছে রায়পুর পৌরসভার মেয়র ইসমাইল খোকন। ৩১ অক্টোবর শনিবার রায়পুর থানায় দায়েরকৃত মামলা নং-৩২।

সাংবাদিকদের নামে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়েরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়েছে লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাব, সম্পাদক পরিষদ, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন, জেলা রিপোর্টাস ক্লাবের সংবাদকর্মীগণ। এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে অবাধ ও স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিবেশ বিনষ্টের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সাংবাদিকদের এসব সংগঠন। আজ রবিবার সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর সম্পাদক পরিষদের নেতৃবৃন্দ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করেছে।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, লক্ষ্মীপুর থেকে প্রকাশিত দৈনিক বাংলার মুকুল পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক এ কে এম মিজানুর রহমান মুকুল, একই পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক আফরোজা আক্তার রাঙ্গা, রায়পুর প্রতিনিধি জহিরুল ইসলাম টিটু ও মোহনা টিভি রায়পুর প্রতিনিধি মোঃ এস এন উদ্দিন রিয়াদ।

সাংবাদিক নেতারা বলেন, গত ২৮ অক্টোবর দৈনিক বাংলার মুকুল পত্রিকায় “রায়পুর ডাকাতিয়া নদী এখন খোকন ডাকাতের কবলে” শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদের শিরোনামে ভূলবশত ডাকাত শব্দটি ব্যবহার হয়েছে মর্মে পরের দিন অর্থাৎ ২৯ অক্টোবর একই সংবাদের সংশোধনী দেওয়া হয়েছে। অথচ সংশোধনী দেওয়ার পরও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা করায় ক্ষোভে ফুঁশে উঠেছে সাংবাদিক মহল।

এদিকে অনতিবিলম্বে নিঃশর্তভাবে মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে লক্ষ্মীপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি হোসাইন আহম্মদ হেলাল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন সভাপতি জহির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক বায়েজীদ ভূঁইয়া, জেলা সম্পাদক ও প্রকাশক পরিষদের সাংবাদিক বৃন্দ।  লক্ষ্মীপুর রিপোর্টাস ক্লাবের সভাপতি একিউএম সাহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম জয়, লক্ষ্মীপুর রিপোর্টাস ক্লাবের সভাপতি আফজাল হোসেন সবুজ সহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

অন্যথায় কঠোর আন্দোলনের কর্মসূচি অব্যাহত রাখার হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমরা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে ও ব্যক্তিস্বার্থে যারা এ আইনের চরম অপব্যবহার করেছেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।