লক্ষ্মীপুরে গরু চুরির অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতাকে গনধোলাই

সবুজ জমিন:- লক্ষ্মীপুরে ৭ টি গরু চুরির অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতাকে গনধোলাই দিয়েছে স্থানীয় জনতা। শাকিল সদর উপজেলার ১ নং উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।স্থানীয়রা জানান, ৭ নং ইউনিয়নের ‘নাগের হাঁটে’ চুরি করা গরু বিক্রি করতে এসে গরু বাজারে গরু দালালের হাতে গরু দিয়ে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় ধরা পড়ে শাকিল।

শাকিলের বাড়ি লক্ষ্মীপুর জেলার সদর উপজেলার ১ নং উওর হামছাদী ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের এমদা উল্লাহ খলিফার বাড়ির (মিরগঞ্জ) সে মোঃ আনোয়ারের ছেলে। সে একই বাড়ির নুরুর গরু চুরি করে নাগের হাট বাজারে বিক্রি করতে আসলে নুরুর ছেলে ( রাজিব হোসেন) গরু বাজারে এসে গরু টি দেখে চিনে ফেলে। গরুর কাছে গিয়ে দালালের কাছে জানতে চাইলো গরুটি কার? দালাল শাকিল কে দেখিয়ে দেয়।

অতঃপর বাজারে লোকদের সাহায্যে নিয়ে শাকিল কে ধরে গনধোলাই দিয়ে বাজারে আটক করে রাখলে এলাকার মেম্বার ফারুক হোসেন সহ কিছু লোক তাকে উদ্ধার করে তাদের এলাকার মিরগঞ্জ বাজারে নিয়ে আসে।

স্থানীয়রা আরো জানান, শাকিল স্বীকারোক্তিতে বলে সে আরো ৭ টি গরু চুরি করে বিক্রি করছে ।

এই বিষয়ে ইউপি সদস্য ফারুক হোসেন বলেন, ৭ সেপ্টম্বর এ ১নং উওর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদে বিষয়টি সমাধান করা হবে। বর্তমানে শাকিল কে তার বাবার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।

সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইবনে জিসাদ আল নাহি আন সবুজ জমিনকে বলেন, শাকিলের বিরুদ্ধে গরু চুরির অভিযোগের বিষয়টি ইউপি পরিষদের চেয়ারম্যান ইমরান হোসেন নান্নু নিকট বিচারধীন রয়েছে। শীঘ্রই শাকিলকে সাময়িক বহিস্কার করা হবে। শালিসে শাকিল পুরোপরি অভিযুক্ত হলে দল থেকে তাকে বহিস্কার করা হবে।
ইউপি চেয়ারম্যান ইমরান হোসেন নান্নু মোবাইল ফোন রিসিভ না করায় তাঁর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।