জলাবদ্ধতায় লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজার : জনদুর্ভোগ চরমে

সবুজ জমিন প্রতিবেদক: জলাবদ্ধতায় লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজার : জনদুর্ভোগ চরমে মহাসড়কের দুই পার্শ্বে দোকান মালিকদের দোকানের সামনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টিতে পানি জমে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টির পানি আটকে পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় যানবাহন, ব্যবসায়ী ও পথচারীরা ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। জলাবদ্ধতার কারণে কয়েকটি স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।
প্রশাসনের উচ্চপদস্থ অফিসারগণ বাজারে আসা যাওয়া করলেও বাজারের এসব সমস্যা দেখেও সমস্যা নিরসনে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ নিচ্ছেনা বলে জানান স্থানীয়রা ।
দুর্ঘটনা ও জনগণের দূর্ভোগ এড়াতে বাজারের সৃষ্ট জলবদ্ধতা নিরসনের বিষয়ে বনিক সমিতি ও বাজার উন্নয়ন কমিটি একে অপরকে দায়ী করছেন।
সরেজমিনে দেখা যায়, ২০ জুলাই ২০২০ সোমবার সকালে আধা ঘন্টায় বৃষ্টিতে পানি জমে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা কোন ড্রেন না থাকায় পানি আটকে থাকার ফলে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ব্যবসায়ী ও পথচারীরা। বাজারের নিদ্দিষ্ট ময়লা ফেলার জায়গা নেই । শতাধিক দোকানের ময়লা আবজনা দীর্ঘদিন ফেলে রাখায় পানি নিষ্কাশনের সমস্যা সৃষ্টি হয়। এতে দূর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানি উপচে পড়ছে সড়কের দুই পাশে। দূর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানির কারণে স্থানীয় বাসিন্দা ও পথচারীদের স্বাভাবিক চলাচল করা দুষ্কর হয়ে দাঁড়িয়েছে। দূর্গন্ধযুক্ত ময়লা পানির কারণে বিভিন্ন প্রকারের পানিবাহিত রোগে আক্রান্তের আশঙ্কা করছেন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয় দোকান মালিক বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান মাস্টার সবুজ জমিন কে জানান, বাজারে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার কারণে প্রতি বর্ষা মৌসুমে পানি জমে এবং গর্তের সৃষ্টি হয়। পানি নিষ্কাশনে জরুরী ভিত্তিতে ব্যবস্থা না নিলে দালাল বাজারের ব্যবসায়ী ও পথচারীদের চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়বে।
এ ব্যাপারে মুঠোফোনে বাজার উন্নয়ন কমিটির সভাপতি ও ইউপি পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান সোহেল সবুজ জমিনকে বলেন, দালাল বাজার সড়কে দুইটি পাশ সড়ক ও জণপদের আর বিশেষ করে অস্থায়ী কিংবা স্থায়ী দোকানদাররা দোকানের সামনে ময়লা আবর্জনা ফেলে রাখে, বাজার বনিক সমিতি নিয়ন্ত্রণে থাকা মালিরা দীর্ঘদিন থেকে ময়লা আবর্জনা পরিস্কার না করার কারণে পানি জমে থাকতে পারে।
অপরদিকে দালাল বাজার বনিক সমিতি সাধারণ সম্পাদক মীর মহিদ্দিন সবুজ জমিনকে বলেন, পুরো বাজারে ড্রেনেজ ব্যবস্থা বেহালদশা। বাজারের এ বিষয়টি সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার কে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে প্রশাসন উদ্যোগ নিলে বাজারের এসব সমস্যা নিরসন সম্ভব। তবে দীর্ঘদিন থেকে বাজারের ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বনিক সমিতি দৃশ্যমান অনেক গুলো কাজ সম্পুন্ন করেছে । এতে বাজার উন্নয়ন কমিটির সভাপতি কামরুজ্জামান সোহেল চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে বিন্দু পরিমান কোন সহযোগিতা পাইনি বনিক সমিতি। এমনকি বাজার উন্নয়ন কমিটি ইউনিয়ন পরিষদ বাজারের উল্লেখযোগ্য কোন কাজ করেনি বলে সবুজ জমিনকে জানান বনিক সমিতির এ নেতা মীর মহিউদ্দিন।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রেদোয়ান আরমান শাকিল বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে ড্রেনেজ ব্যবস্থা চালু সহ স্থায়ী সমাধানের জন্য দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।