বেঁচে থাকার জন্য বৃক্ষ অনিবার্য : কৃষকলীগ নেতা রানা

সবুজ জমিন প্রতিবেদক : বৃক্ষ মানবজীবনের এমন এক বন্ধু, যার কোন বিকল্প নেই। জীবনের জন্য, বেঁচে থাকার জন্য বৃক্ষ অনিবার্য। মানুষ বুঝে কিংবা না বুঝে প্রয়োজনে কিংবা অপ্রয়োজনে বৃক্ষ নিধন করছে। বনের পর বন উজাড় হয়ে যাচ্ছে। ধীরে ধীরে পরিবেশ দূষণ ঘটছে, তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাচ্ছে। পরিবেশ হয়ে উঠছে ভারসাম্যহীন। তাই এই পরিবেশ রক্ষার্থে ব্যাপক ভাবে দেশব্যাপি বৃক্ষ রোপনের কর্মসূচি গ্রহন করেছে বাংলাদেশ কৃষক লীগ। তারাই ধারাবাহিকতায় সোমবার (১৫ জুন) বিকেলে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে কৃষকলীগ আয়োজিত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বৃক্ষ রোপন কর্মসূচির এসব বিষয়ে সবুজ জমিনকে নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ কৃষকলীগের (প্রস্তাবিত কুমিল্লা বিভাগের) দায়িত্ব প্রাপ্ত নেতা এবং লক্ষ্মীপুর জেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক হিজবুল বাহার রানা।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগসহ এর সব সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা বলেন, সারা বাংলাদেশে আমাদের বৃক্ষরোপণ করতে হবে। আমাদের যেখানে যত নেতা-কর্মী আছে মূল দল আওয়ামী লীগের সঙ্গে সঙ্গে সব সহযোগী সংগঠন; প্রত্যেক সংগঠনের প্রতিটি সদস্য তিনটি করে গাছ লাগাবে। ‘আসুন মুজিববর্ষে আমরা সবাই মিলে বৃক্ষরোপণ করে আমাদের দেশকে রক্ষা করি। দেশের পরিবেশ রক্ষা করি, আর মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করি।’

এসময় ভিডিও কনপারেন্সে বক্তব্য রাখেন সাবেক কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, বর্তমান কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক, কৃষকলীগের সভাপতি সমীর চন্দ্র চন্দ, সাধারণ সম্পাদক উম্মে কুলসুম স্মৃতি।

কৃষকলীগ নেতা রানা প্রতিবেদককে আরো বলেন, একটি দেশের মোট আয়াতনের ২৫ ভাগ বৃক্ষ বনভূমি থাকা জরুরী। কিন্তু সেই তুলনায় আমাদের বনভূমি একবারে কম। বাংলাদেশ মোট আয়াতনের মোট ১৬ ভাগ বনভূমি যা প্রয়োজনের তুলনায় অত্যান্ত নগণ্য।

তারপরও মানুষ প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে অনেকে বনের গাছ কটে ফেলছে। বনভূমির আয়াতন দিন দিন কমে যাচ্ছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করছেন কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা রানা। মূলত পরিবেশ রক্ষার্থে ও বনায়নের সুরক্ষার জন্য, বৃক্ষ রোপন বিষয়ে জনসচেতনাতা বৃদ্ধি করা লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ কৃষকলীগ।