লক্ষ্মীপুরে তরুনী উদ্ধারে তৎপর পুলিশ

সবুজ জমিন প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুরে ফারজিন সুলতানা নামে এক তরুনীকে জোর পুর্বক তুলে নিয়ে যায় রুবেল নামে সিএনজি চালক, এমনি অভিযোগ করছেন পরিবারের সদস্যরা। মেয়েকে উদ্ধারের দাবিতে লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন ফারজিন সুলতানার পিতা মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ফারজিন সুলতানা লক্ষ্মীপুর পৌর আইডিয়াল কলেজ এইচ এসসি প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী।
ঘটনাটি ঘটেছে আজ বুধবার দুপুর ১২টায় সদর উপজেলার ৩নং দালাল বাজার ইউনিয়নের পশ্চিম লক্ষ্মীপুর গ্রামে আসলাম ভুইয়া বাড়ীর প্রাঙ্গণে। রুবেল হোসেন আব্দুল মতিনের ছেলে , সাং পশ্চিম লক্ষ্মীপুুুর।
ফারজিন সুলতানার পরিবার সুত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুর ১২টায় পশ্চিম লক্ষ্মীপুর গ্রামে আসলাম ভুইয়া বাড়ী থেকে ফারজিন সুলতানা কে তুলে নিতে পুর্বে থেকে উৎপেতে থাকে রুবেল ও তার সহযোগীরা। মেয়েটি যখন তার বাড়ীর আঙ্গিনায় চলাফেরা করছে হঠাৎ করে তরুনীকে সিএনজিতে তুলে নিয়ে যায় ।

এই সময় তরুনী মা দৌড়ে এসেও সিএনজি প্রতিরোধ করতে পারেনি। সি এনজি নং ৪৩৪-চালক সবুজ।
এ বিষয়ে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন প্রতিবেদককে জানান, পুর্বে থেকে বাড়ীর সামনে সিএনজি নিয়ে উৎপেতে থাকে রুবেল ও তার সহযোগীরা। এর কিছুক্ষণ পর জানা যায় ঐ সিএনজি দিয়ে ফারজিন সুলতানাকে তুলে নিয়ে যায়। তিনি আরো বলেন, রুবেল সিএনজি চালক বখাটো ছেলে, মাদকাসক্ত, খারাপ ছেলেদের সাথে দরম মহম সম্পর্ক। এ বখাটো ছেলের কবল থেকে মেয়েকে উদ্ধার করিতে লক্ষ্মীপুর মডেল থানায় অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমানের দ্বারস্থ হয়েছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুর রহমান বলেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন বাদি হয়ে একটি অভিযোগ করেছেন মেয়েটিকে উদ্ধার করিতে পুলিশ কাজ করছে। প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করে অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে।