কে বাইজিদ ভূঞা প্রতিদিনই হতদরিদ্রদের  ত্রাণ দিচ্ছেন

দৈনিক সবুজ জমিন প্রতিনিধি:: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে লক্ষ্মীপুরকে লকডাউন করা হয়েছে। লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়েছে নিম্নআয়ের মানুষ। কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় মানুষদের খাদ্য সহয়তা অব্যাহত রেখেছেন লক্ষ্মীপুর সদর- ৩ আসনের সংসদ সদস্য এবং সাবেক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী এ কে এম শাহজাহান কামাল। তার পক্ষ থেকে ঘরে থাকা অসহায় মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্য সহয়তা পৌঁছে দিচ্ছেন এমপির প্রতিনিধি ও সাবেক জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক বায়েজীদ ভূঁইয়া।

বর্তমানে করোনা পরিসি’তিতে মানুষ যখন ঘর থেকে বাহির হচ্ছেনা, তখন অসহায় মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে গত ১৭দিনে তিনি খাদ্য সহয়তা পৌঁছে দিচ্ছেন। দরিদ্র পরিবারে জন্য এমপির খাদ্য সহয়তা প্রদান অব্যাহত রেখেছেন। সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে হতদরিদ্র মানুষের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়। এ নিয়ে গত ১৭দিনে সদরের ১২টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার অসহায় ও দুস’ পরিবার গুলোকে খাদ্য সহয়তা দেওয়া হলো।
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি চলছে। তার মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে লক্ষ্মীপুরকে লকডাউন করে স্থানীয় প্রশাসন। ফলে কর্ম হারিয়ে গৃহবন্দী হয়ে পড়ে দিনমজুর জনগোষ্ঠী। এঅবস’ায় সরকার শুরু থেকে উদ্যোগ নিয়েছে প্রতিটি অসহায়দের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার।

সরকারের সেই প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী লক্ষ্মীপুর সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শাহজাহান কামাল তাঁর আসনের প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভার ওয়ার্ড গুলোতে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে আসছেন। এ সহয়তা ধারাবাহিকভাবে গত ১৭দিন বিভিন্ন বাড়ি-বাড়ি গিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন এমপির প্রতিনিধি বায়েজীদ ভূঁইয়া। এছাড়াও হটলাইনেও ফোন পেলে অসহায়দের বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে খাদ্য সামগ্রী। ঘরে থাকা অসহায় এ সব মানুষের মাঝে ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

বায়েজীদ ভূঁইয়া বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী লক্ষ্মীপুর সদর-৩ আসনের এমপি এ কে এম শাহজাহান কামালের পক্ষ থেকে প্রতিটি কর্মহীন-গৃহবন্দীদের বাড়ি-বাড়ি গিয়ে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিয়ে আসছি। ১৭তম দিনও প্রায় দুইশত দিনমজুরের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। লকডাউনে যারা ঘরে রয়েছেন তাদের ঘরে খাদ্য সহয়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। সবাই ঘরে থাকুন আমরা আপনাদের ঘরে খাদ্য পৌঁছে দিব।