লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজারে নিরিহ শ্রমিকের বসত ঘর ভাংচুর

স্টাফ রিপোর্টার: লক্ষ্মীপুরের দালাল বাজারে মোস্তাফা নামে এক নিরিহ শ্রমিকের বসত ঘর ভাংচুর করেছে অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ আব্দুর রব, আশ্রাফুর রহমান বাবুল, আহম্মেদ ফারুক, আব্দুল হাই গংদের বিরুদ্ধে। এ ঘটনা ঘটেছে ২৩ ডিসেম্বর সোমবার সকাল ৭ ঘটিকায় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা দালাল বাজার ইউনিয়নে মহাদেবপুর গ্রামে ৩নং ওয়ার্ডে আলী রাজা পাটওয়ারী বাড়ীতে। বসতঘর ভাংচুর ও মালামাল লুটপাটের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে মোস্তাফা বাদী হয়ে আব্দুর রব, আশ্রাফুর রহমান বাবুল, আহম্মেদ ফারুক, আব্দুল হাই কে বিবাদী করে লক্ষ্মীপুর মডেল সদর থানা অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ২৩ ডিসেম্বর সোমবার সকাল ৭ ঘটিকায় বিবাদী আব্দুর রব, আশ্রাফুর রহমান বাবুল, আহম্মেদ ফারুক, আব্দুল হাই সন্ত্রাসী কায়দা দা চেনি লোহার রড নিয়ে মোস্তফার উপর অতকিত ভাবে হামলা চালায়। এসময় বিবাদীরা বাদী মোস্তফার বসতঘর ভাংচুর করে । বাদীর স্ত্রীর শোর চিৎকারে পাশবর্তী মানুষ এগিয়ে আসলে এসময় বিবাদীরা রড বাদীকে বেদম প্রহার করে। একপর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে বাদী মাটিকে লুটে পড়লে বিবাদীরা গঠনাস্থল ত্যাগ করে। পরে স্থানীয়রা মোস্তাফাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে চিকিৎসা অবস্থায় মোস্তাফা সাংবাদিকদের জানান, আমি আমিন মিয়ার ওয়ারিশ হিসেবে ১১২ ডিং ভূমি মালিক। উক্ত ভূমিতে আমার বসত ঘর। বিবাদী আব্দুর রব, আশ্রাফুর রহমান বাবুল, আহম্মেদ ফারুক, আব্দুল হাই সন্ত্রাসী কায়দায় দা চেনি রড নিয়ে আমার ঘরে ঢুকে আমাকে মারধর করেছে এবং বসত ঘর ভাংচুর করে ঘরের মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বিবাদীরা । আমি থানায় ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কে বিষয়টি অবগত করেছি। বাদী আরো বলেন, ২০০৫ সালে দালাল বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক চৌধুরী বিবাদীদের উপস্থিতিতে আমার জমি পরিমাপ করে আমাকে ১১২ শতাংশ ভূমি বুঝায় দেয়। কিন্তু বিাদীরা তখনো আমার বসত ঘর ভাংচুর করে আমাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে। এ ব্যাপারে বিবাদীরা প্রতিবেদক বলেন, তারা মোস্তাফাকে চিনেন না ঘরটি তাদের বলে দাবি করেন তারা সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানায় এস আই পুলেন বড়ুয়া বলেন মারধর ও বসত ঘর ভাংচুরের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে।