৪৬ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার

  • সবুজ জমিনঃ ঢাকা জেলা ডিবি (উত্তর) অভিযান চালিয়ে ৪৬ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে। শনিবার (১৩ এপ্রিল) সকালে সাভার মডেল থানায় প্রেস ব্রিফিং কালে একথা জানান ঢাকা জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান, বিপিএম (বার), পিপিএম।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে সাভার মডেল থানাধীন রেডিও কলোলী সংলগ্ন সাহারা সিএনজি পাম্পের সামনে রাস্তার উপর কতিপয় লোক মাদক দ্রব্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে মাদকসহ অবস্থান করছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকা জেলা ডিবি (উত্তর) এর অফিসার ইন-চার্জ মোহাম্মদ আবুল বাসার, পিপিএম (বার) এর নির্দেশনায় উপ-পরিদর্শক মো. আব্দুল আজিজ, সহকারী উপ-পরিদর্শক মো. আমিনুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে একটি গ্যাস সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাকসহ দুই জনকে আটক করে। সোর্সের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাক হতে ২৭ কেজি ওজনের দুইটি সিলিন্ডার ট্রাক হতে নামিয়ে পাশের গ্যারেজে নিয়ে সিলিন্ডার কেটে সিলিন্ডারের মধ্যে হতে ৪৬ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

সাভারে এযাবতকালের সর্ববৃহৎ অভিনব পদ্ধতিতে দুইটি সিলিন্ডারের ভিতরে একটিতে ১১টি এবং অপরটিতে ১২টি করে মোট ২৩টি কালো রঙ এর প্লাস্টিক হোস পাইপের ভিতরে করে এই বিপুল পরিমানে ইয়াবা পাচার করা হচ্ছিলো। প্রতিটি হোস পাইপে ২ হাজার পিস ইয়াবা বহন করা হয়।

মাদক উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকারী ঢাকা জেলা ডিবি (উত্তর) এর উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম মৃধা বলেন, গোপনসূত্রে খবর পেয়ে সাহারা সিএনজি পাম্পের কাছে আমরা অবস্থান নেই। একটি সিএনজি গ্যাস সিলিন্ডার বাহী ট্রাকে (চট্ট মেট্রো ড ১১-২১১১) মোট ২০০টি সিলিন্ডার বহন করছিলো। এর ভিতর দুইটি সিলিন্ডারের মধ্যে ১১টি কালো হোস পাইপের ভিতরেই ইয়াবা বহন করা হচ্ছে সোর্স মারফত এমন খবর পাই। এসময় ট্রাকটি আটক করে চালক ও এর সহকারীকে আটক করলেই পাচারের এই অভিনব পদ্ধতির কথা জানা যায়। উদ্ধারকৃত ইয়াবার আনুমানিক মূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। ইয়াবা সরবরাহের কাজে নিয়োজিত সিলিন্ডার ভর্তি ট্রাকটিও জব্দ করা হয়েছে।

আসামীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, পলাতক আসামী দুইজনের সহায়তায় ধৃত আসামী মোঃ মাহমুদুল হক ও মোঃ ঈসমাইল দীর্ঘ দিন যাবত প্রায়ই উক্ত ট্রাকে সিলিন্ডারের মধ্যে কক্সবাজার হতে ইয়াবা ট্যাবলেট এনে গ্যাসের সিলিন্ডার ব্যবসার অন্তরালে অত্যন্ত সু-কৌশলে গাজীপুর ও ঢাকা সহ আশেপাশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ ও বিক্রয় করে থাকে। ধৃত ও পলাতক আসামীদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য আইনের নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে বলে প্রেস ব্রিফিংয়ে৷ জানানো হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ সাঈদুর রহমান, সাভার মডেল থানার অফিসার ইন-চার্জ এএফএম সায়েদ, ঢাকা জেলা ডিবি (উত্তর) এর অফিসার ইন-চার্জ মোহাম্মদ আবুল বাশার সহ সাভার মডেল থানা ও গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যগণ।