লক্ষ্মীপুরের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র বন্ধ থাকায় সেবা পাচ্ছে না রোগীরা

সবুজ জমিন প্রতিবেদক: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা ৬নং ভাংঙ্গাখা ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র বন্ধ থাকায় সেবা পাচ্ছেনা রোগীরা। এতে স্থানীয় জনগণ সেবা না পাওয়ায় ডাক্তার নুরুল আমিনের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছেন। তারা আরো বলছেন ডাক্তার নুরুল আমিন মাঝে মধ্যে স্থানীয়দের বলেন তিনি তার বসকে ঘুষ দিয়ে বশ করে রেখেছেন এই জন্য তার উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা তার এসব অনিয়মের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিবেনা।

সরোজমিনে গেলে সেবা বঞ্চিত মিজানুর রহমান, ওমর ফরুক, রাসেল, পলাশ, রিয়াদুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, প্রাই সময় ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান কেন্দ্র বন্ধ থাকে । মাঝে মধ্যে পিয়ন এসে অফিস খুলে ঘন্টা খানেক থেকেই চলে যানা।

স্থানীয় মানুষ অসুস্থ্য হয়ে এ হাসপাতালে আসে চিকিৎসার জন্য কিন্তু এখানকার কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার ডাক্তার মোহাম্মদ নুরুল আমিন কে পাওয়া যায়না। উপস্থিত যারা আছেন তারা সব সময় রোগীদের সাথে খারাপ আছারণ করেন। প্রতি রোগী থেকে ১০০ টাকা করে নিচ্ছেন। কোন ওষুধ তারা দিচ্ছে না। বাহিরের থেকে টাকা দিয়ে ওষুধ আনতে হয়। রোগীদের কে মান্দারী প্রাইভেট হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ বিষয়ে ডাক্তার নুরুল আমিন সবুজ জমিনকে মুঠোফোনে সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সাংবাদিকগন যখন আসছে তখন আমি আমার প্রাইভেট কাজে বাহিরে ছিলাম, আয়া বাহিরে ছিল আরেকজন তার প্রয়োজনী কাজে মান্দারী ছিল। তবে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের কোন সুদুত্তর না দিয়ে এড়িয়ে যান তিনি।

এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার উপ-পরিচালক ডাক্তার আশফাকুর রহমান মামুন সবুজ জমিনকে বলেন ডাক্তার নরুল আমিনের বিষয়ে খতিয়ে দেখতেছি।

এ বিষয়ে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শহিদ রেজাউন আরমান শাকিল বলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে আলোচনা করে অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।