ডিগবাজ সোহাঘ এখন আওয়ামীলীগে

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ এলাকায় কেউ বলে পেট্রল সোহাঘ, কেউ বলে ডিগবাজী, আবার কেউ বলে সুবিবাধী ভূমি ক্ষেকো, আবার কেউ বলে পল্টিবাজ সোহাঘ। আর এই ধরেনর একটি লোক তার নাম সোহাঘ পাটোওয়ারী। সে ৩নং দালাল বাজার ইউনিনে মহাদেবপুর গ্রামের আব্দুল মতিন পাটোওয়ারী ছেলে । ১৯৮৮ সাল থেকে এই সোহাঘ সময় ক্ষমতাশীনদের ছায়াতলে থেকে নিজের আধিপত্য বিস্তার করে প্রতিপক্ষে নিধন করে।

লক্ষ্মীপুর রায়পুরে সংসদীয় আসনে মহাজোটের প্রার্থী কাজী শহিদুল ইসলাম পাপুলের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে দায়েকৃত রিটটি খারিজ হওয়ার সাথে সাথে বিএনপি নামধারি সন্ত্রাসী লক্ষ্মীপুর জেলা স্বেচছাসেবকদলের সদস্য, দালাল বাজার ইউনিয়ন যুবদলের সহ-সভাপতি সোহাঘ পাটোয়ারী আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

যোগদান কে কেন্দ্র করে স্থানীয় আওয়ামী যুবলীগ ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। এই নিয়ে অন-লাইন ফেইজবুক সোসাল মিডিয়াতে চলছে নানান আলোচনার ঝড়। আওয়ামী নেতাকর্মীরা বলছেন এখন জাতীয় নির্বাচন এ মুহুত্বে দলের হাই কমান্ডের সাথে যোগাযোগ না করে বির্তকিত ডিগবাজ লোকদের কে আওয়ামী লীগে যোগদান করিয়ে স্থানীয় ত্যাগী আওয়ামী পরিবার ও নেতাকর্মীদের দলের প্রতি বিমুখ করে দেওয়ার অপকৌশল।

বিভিন্ন সুত্রে জানা যায়, ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮ বুধবার বিকালে সোহাঘ পাটোওয়ারী সহ যারা লক্ষ্মীপুর জেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়নের হাতে ফুল দিয়ে আ.লীগে যোগদান করেছে। এরা বহুরুপী, এরা ডিগবাজী লোক। যখন যে দল ক্ষমতায় আসে তখন সে দলে শফথ করে যোগদান করেন। সোহাঘ পাটোয়ারীর বিরুদ্ধে রয়েছে বিস্তর অভিযোগ, সর্বপ্রথম সে জাতীয় পাটি রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন, তার পর বিএনপিতে যোগদান করেন, ১৯৯৭ সালে শফথ করে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। ২০০০ সালে পুনরায় বিএনপিতে ফিরে গিয়ে এলাকায় তান্ডব চালায়, চাঁদাবজি, জমি দখল, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উপর হামলা, দোকানঘর ভাংচুর সহ আওয়ামী পরিবারের উপর অত্যাচার নির্যাতনে বিস্তর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। বিগত বিএনপির জ্বালাও পোড়া আন্দোলনে প্রকাশ্যে রায়পুর লক্ষ্মীপুর মহাসড়ক ও সড়কের পাশের গাছ কেটে রোডে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন বির্তকিত সোহাঘ।

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩নং দালাল বাজার ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মুরাদ হোসেন সাংবাদিকদের বলেন ২৬ ডিসেম্বর বুধাবার সকালে মহাজোটের প্রার্থী কাজী শহিদুল ইসলাম পাপুলের পক্ষে প্রচারণা করার সময় সোহাঘ পাটোওয়ারীর নেতেৃত্বে বিএনপির ১০/১৫ জন লোক আমাদের হামলা চালায়, তারা আরো জানান, ২৪ ডিসেম্বর সোমবার রাখালিয়া থেকে সোহাঘ পাটওয়ারীর নেতৃত্বে বিএনপির শতাধিক লোক সদ্দারবাড়ী ষ্টেশন এলাকায় এসে আওয়ামী নেতাকর্মীদের কে ধাওয়া দেয়।

এই ব্যাপারে জানতে লক্ষ্মীপুর জেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়নে মোবাইল ফোন রিসিভ না করায় তাঁর বক্তব্য নেওয়া যাইনি।