টাঙ্গাইলে আটটি আসনে চুড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ৫০ জন প্রার্থী

টাঙ্গাইলের আটটি আসনে গতকাল রবিবার ২৩জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের পর ৫০ জন প্রার্থী নির্বাচনে চুড়ান্তভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। সোমবার প্রতিক পাওয়ার পর থেকেই জোরেসোড়ে নির্বাচনী প্রাচার প্রচারণায় মাঠে নামবেন তারা।

চুড়ান্ত প্রার্থীরা হলেন, টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগের ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, বিএনপির সরকার শহীদ, এনপিপির আবু মিল্লাত হোসেন, ইসলামী আন্দোলনের আশরাফ আলী ও জাকের পার্টির সালামত হোসাইন খান।

টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভ‚ঞাপুর) আসনে আওয়ামী লীগের তানভীর হাসান ছোট মনির, বিএনপির সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, জাকের পার্টির এনামুল হক মঞ্জু, ইসলামী আন্দোলনের এস এম শামসুর রহমান, বিকল্প ধারার মুনিরুল ইসলাম, কমিউনিস্ট পার্টির জাহিদ হোসেন খান।
টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনে আওয়ামী লীগের আতাউর রহমান খান, বিএনপির লুৎফর রহমান খান আজাদ, এনপিপির এস এম চান মিয়া, তরিকদ ফেডারেশনের মোঃ আবু হানিফ, বিএনএফ’র আতাউর রহমান খান, জাকের পার্টির খলিলুর রহমান, ইসলামী আন্দোলনের রেজাউল করিম।টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনে আওয়ামী লীগের হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী, ঐক্যফ্রন্ট থেকে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের লিয়াকত আলী, স্বতন্ত্র সাবেক মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, ইসলামী আন্দোলনের মির্জা আবু সাঈদ, জাকের পার্টির মোস্তাক আলী, জাতীয় পার্টি (জেপি) সাদেক সিদ্দিকী, জাতীয় পার্টির সৈয়দ মোস্তাক হোসেন।

টাঙ্গাইল-৫ (সদর) আসনে আওয়ামী লীগের মো. ছানোয়ার হোসেন, বিএনপির মাহমুদুল হাসান, জাতীয় পার্টির শফিউল্লাহ আল মুনির, স্বতন্ত্র মুরাদ সিদ্দিকী ও সাবেক এমপি আবুল কাশেম, ইসলামী আন্দোলনের খন্দকার ছানোয়ার হোসেন, বিএনএফ’র শামীম আল মামুন, খেলাফত আন্দোলনের সৈয়দ খালেদ মোস্তফা।

টাঙ্গাইল-৬ (নাগরপুর-দেলদুয়ার) আসনে আওয়ামী লীগের আহসানুল ইসলাম টিটু, বিএনপির গৌতম চক্রবর্তী, স্বতন্ত্র ব্যারিস্টার আশরাফুল ইসলাম ও আবুল কাশেম, এনপিপি’র মামুনুর রহমান, তরিকত ফেডারেশনের মোঃ আনোয়ার হোসেন, ইসলামী আন্দোলনের আখেনুর মিয়া।
টাঙ্গাইল-৭ (মির্জাপুর) আসনে আওয়ামী লীগের একাব্বর হোসেন, বিএনপির আবুল কালাম সিদ্দিকী, জাতীয় পার্টির জহিরুল ইসলাম জহির, ইসলামী আন্দোলনের শাহীনুর ইসলাম, প্রগতিশীল গনত্রান্ত্রিক দলের রূপা রায় চৌধুরী ও খেলাফত মজলিসের সৈয়দ মজিবর রহমান।
টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনে আওয়ামী লীগের জোয়াহেরুল ইসলাম, ঐক্যফ্রন্টের কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কুঁড়ি সিদ্দিকী, ইসলামী আন্দোলনের আব্দুল লতিফ মিয়া, এনপিপি’র শফি সরকার।